কৌতুক সংগ্রহ-০৩

ছেলের কান্না

 

 

দার্শনিকঃ এতটুকু ছেলে রাস্তায় দাঁড়িয়ে কাঁদছে, বড় মায়া হল, তাই কোলে করে নিয়ে এলাম।
স্ত্রীঃ তুমি কি চোখের মাথা খেয়েছ? নিজের ছেলেকে চিনতে পারছ না।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

খুব খারাপ

 

 

এক বন্ধুর মন খুব খারাপ। অন্য বন্ধু তাই দেখে কথা বলছেঃ
১ম বন্ধুঃ কিরে দোস্ত, মন খারাপ কেন? ওঃ তোর বউ সেই যে বাপের বাড়ি গেল, এখনও আসেনি, তাই?
২য় বন্ধুঃ নারে দোস্ত, আজকে তার ফিরে আসার কথা!

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

পেঁয়াজ

 

 

স্ত্রী : কী ব্যাপার! বাজার থেকে পেঁয়াজ আননি কেন, দাম বেশি বলে পেঁয়াজ আনবে না?
স্বামী : না, ঠিক তা নয়।
স্ত্রী : তাহলে?
স্বামী : পেঁয়াজ কাটতে বসে তুমি প্রতিদিন চোখের জল ফেলবে, দৃশ্যটা আমি সহ্য করতে পারি না।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

সুন্দরী

 

 

স্ত্রী : বল তো, ‘আমি সুন্দরীএটা কোন কাল?
স্বামী : অতীত কাল!

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

স্বর্গ

 

 

স্ত্রীঃ স্বামী এবং স্ত্রীকে কখনো একসঙ্গে স্বর্গে ঢোকার অনুমতি দেয়া হয় না।
স্বামীঃ হ্যা, এজন্যই এর নাম স্বর্গ।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

বারন

 

 

স্ত্রীঃ তোমার বন্ধু যাকে বিয়ে করতে যাচ্ছে সে মেয়েটা কঠিন দজ্জাল। তাকে বারন করো।
স্বামীঃ কেন বারন করবো? সে কি আমার সময় বারন করেছিল?

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

ভাবনা

 

 

স্বামী: তুমি কি ভেবেছো? আমি কি গাধা!!?
স্ত্রী: এতে ভাবাভাবির তো কিছু দেখি না!

 

ছাতা নিয়ে যা

 

 

এক বৃষ্টির দিনে মালিক তার কাজের লোককে বলছে-
মালিক : রহিম, বাগানে পানি দিতে যা।
কাজের লোক : হুজুর আজকে তো বৃষ্টি হচ্ছে।
মালিক : বৃষ্টি হলে ছাতা নিয়ে যা!

 

নানার বিল

 

 

এক লোক হোটেলের সাইনবোর্ড দেখে খুব খুশি হয়ে ইচ্ছেমতো খেলেন।
ওয়েটারঃ স্যার, আপনার বিল ৫০০ টাকা।
লোকটাঃ কী বলছেন ভাই? আমার বিল? কিন্তু আপনাদের সাইনবোর্ডে যে লেখা, ‘আপনি যা খাবেন আপনার নাতি তা শোধ করবে।
ওয়েটারঃ সেটা না হয় না দিন। কিন্তু এই ৫০০ টাকা দিন। এটা আপনার নানা খেয়ে গেছেন।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

কাটলেট

 

 

রেস্তোরায় ওয়েটারকে এক ভদ্রলোক বললেন- “গত সপ্তাহে আমি এখানে মাটন কাটলেট খেয়েছিলাম। আজও খাচ্ছি। কিন্তু সেদিনেরটা অনেক ভালো ছিল।”
ওয়েটার: কি বলেন স্যার! দুটি কাটলেটইতো একই দিনে বানানো।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

গরম রুটি

 

 

শীতের মাঝ রাতে হোটেলে রুটি আর মাংস খেতে খেতে..
ভদ্রলোক: বাহ, এই মাঝ রাতেও তোমাদের রুটি দেখি বেশ গরম।
ওয়েটার: হবে না স্যার, বিড়ালটাতো রুটিটার উপরেই বসা ছিল।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

চা

 

 

খদ্দের : (রেগে গিয়ে) বেয়ারা, আমার চায়ে মাছি কেন?
বেয়ারা : তাহলে এবার বুঝুন স্যার, মাছিটা পর্যন্ত টের পেয়ে গেছে আমার চা কতটা ফাস্টক্লাস।

 

নকল

 

 

স্কুল পড়ুয়া দুই বন্ধুর পরীক্ষার শেষে স্কুল মাঠে দেখা-

১ম বন্ধুঃ কী রে দোস্ত, পরীক্ষা কেমন হলো ?

২য় বন্ধুঃ পরীক্ষা ভাল হয়নি রে দোস্ত ! তবে ৫ নম্বর নিশ্চিত পাবো ।

১ম বন্ধুঃ কীভাবে ?

২য় বন্ধুঃ পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য ছিল ৫ নম্বর ! তাই আমি পরীক্ষার খাতায় কলমের একটা আচড়ও দেইনি ! তাই ৫ নম্বর নিশ্চিত পাবো ।

১ম বন্ধু :- হায়! সর্বনাশ হয়েছে- আমি ও তো তোর মতো পরীক্ষার খাতায় কলমের একটা আচড়ও দেইনি !

আমাদের দুই জনের খাতাই একই রকম দেখলে- টিচার মনে করবে না যে আমরা দুজনে নকল করেছি!

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

সাইকেল চড়া

 

 

বাবাঃ পাশ করলে বলেছিলাম একটা সাইকেল কিনে দেব, তবুও তুমি পাশ করতে পারলে না। এতদিনে কি করলে তাহলে?
ছেলেঃকেন বাবা তুমি যদি সাইকেল কিনে দাও তাহলে তো আমি চালাতে পারবনা। তাই সাইকেল চড়া শিখছিলাম।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

পরীক্ষা

 

 

ছেলের দুদিন পর পরীক্ষা। অথচ পড়াশোনার নাম গন্ধ নেই। সারাদিন টইটই করে ঘুরে বেড়ায়। মা, ব্যাপারটা দেখে-
মাঃ হাবলু, তোর না দুদিন পরে পরীক্ষা! পড়াশোনা করছিস্‌ না যে!
হাবলুঃ মা পরীক্ষার এত চাপ- পড়ার সময়ই পাচ্ছি না!!

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

শুধু একটা ভুল

 

 

বাবা: খোকা, পরীক্ষা কেমন দিলি?
ছেলে: শুধু একটা উত্তর ভুল হয়েছে।
বাবা: বাহ্! বাকিগুলো সঠিক হয়েছে?
ছেলে: না, বাকি গুলোতে লিখতেই পারিনি।

 

বেশীদিন বাচার উপায়

 

 

রোগীঃ ডাক্তার সাব! বেশীদিন বাচোনের কোন উপায় আছে কি?
ডাক্তারঃ যান বিয়া করেন গিয়া।
রোগীঃ ক্যান? বিয়া করলে কি বেশিদিন বাচন যায়?
ডাক্তারঃ তা কইবার পারুম না। তয় এতডা কইতে পারে যে আপনে বিয়ার পর আর বেশিদিন বাচনের চেষ্টা করবেন না।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

চশমা

 

 

রোগীঃ ডাক্তার সাব, আপনি বলেছেন চশমা নিলে আমি পড়তে পারব।
ডাক্তারঃ নিশ্চয়ই এ বিষয়ে সন্দেহ কি?
রোগীঃ তাহলে ভালোই হবে। আমিতো পড়তে জানতাম না ।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

বদলি

 

 

মহিলার প্রতি ডাক্তার, ঠিক আছে আপনার আগের ডাক্তার কি বলেছে ?
রোগীঃ সে আমার সব কিছু বদলির ও পরিবর্তনের জন্য বলেছে।
ডাক্তারঃ তা আপনি এখন কি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন?
রোগীঃ আমি ডাক্তার বদলি দিয়েই সর্বপ্রথম আরম্ভ করেছি।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

কুকুরে কামড়েছে

 

 

রোগীঃ ডাক্তার সাহেব, আমাকে কুকুরে কামড়েছে।
ডাক্তারঃ আপনি কি জানেন না যে আমার রোগী দেখার সময় ৪টা থেকে ৮টা।
রোগীঃ আমিতো জানি। কিন্তু ওই হতচ্ছাড়া কুকুরে তো আর ওটা জানে না।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

হাতঘড়ি

 

 

অপারেশরেন রুগীকে কয়েকদিন পরে দেখে –
ডাক্তারঃ আরে আপনি! কি খবর? এখন কেমন আছেন? কোন সমস্যা হচ্ছে না তো?
রোগীঃ না, কোন সমস্যা হচ্ছে না। তবে হয়েছি কি এখন দম নেয়ার সময় আর ছাড়ার সময় বুকের ভেতরটায় টিকটিক শব্দ করে।
ডাক্তারঃ (বেশ আনন্দের সঙ্গে) তাইতো বলি, আমার এত দামি ব্রান্ডের হাত ঘড়িটা কই গেল?

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

হতভাগা ডাক্তার

 

 

১ম জন : আপনার ভাগ্য ভালো যে, অ্যাকসিডেন্টটা একজন ডাক্তারের চেম্বারের সামনেই হয়েছে। চিকিৎসা তাড়াতাড়িই পাবেন, কিন্তু ডাক্তার সাহেবকে দেখছি না যে?
২য় জন : কী করে দেখবেন। এই চেম্বারের হতভাগা ডাক্তার তো আমিই।

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

সহজ অপারেশন

 

 

এক রোগী অপারেশন থিয়েটার থেকে ছুটে পালাচ্ছেন । তাকে এভাবে ছুটতে দেখে এক ডাক্তার তার পথ আগলে দাঁড়ালেন।
ডাক্তার : ব্যপার কী, আপনি এভাবে পালাচ্ছেন কেন?
রোগী : সাধে কী আর পালাচ্ছি?
ডাক্তার : ঘটনাটা খুলেই বলুন না।
রোগী : নার্স বলছেন, খুব সহজ অপারেশন, ভয়ের কোনো কারণ নেই।
ডাক্তার : নার্স তো ঠিকই বলেছেন।
রোগী : তিনি কথাটি আমাকে বলেননি, বলেছেন যিনি অপারেশন করবেন, সেই ডাক্তারকে।

 

জ্ঞানী ছাগল

 

 

এক লোক কোরবানীর জন্য ছাগল কিনতে গেল এবং ইংরেজীতে কথা বলতে পারে এমন খুঁজিতেছে। অনেক খোজাখুজি করেও পেলোনা। অবশেষে এক চালাক ছাগল বিক্রেতা ছাগল ক্রেতাকে বলল,ভাই-আমার কাছে ইংরেজীতে কথা বলতে পারে এমন একটা ছাগল আছে।

ক্রেতাঃ ঠিক আছে, আমাকে আগে ইংরেজীতে কথা বলিয়ে দেখান।

ছাগল বিক্রেতাঃ ছাগলের পিঠে একটা থাপ্পর দিয়ে ছাগলকে জিজ্ঞাসা করলো – “এই ছাগল,বল দেখি–ইংরেজী এপ্রিল মাসের পরে কী মাস?”

ছাগলঃ মে……

ছাগল বিক্রেতা আবার ছাগলের ফিঠে একটা থাপ্পর দিয়ে ছাগলকে জিজ্ঞাসা করলো- “এই ছাগল,বল দেখি–ইংরেজী জুন মাসের আগে কী মাস?”

ছাগল:-মে……!!!!

 

·Full Story

·Visit Site

·Printer Version

Thank you!

 

 

এক অশিক্ষিত ভদ্রলোক এক শিক্ষিত ভদ্রলোকের্একটা উপকার করে দিল।
শিক্ষিত ভদ্রলোক বলল- Thank you !

অশিক্ষিত ভদ্রলোকটা এই Thank you শব্দের অর্থ বুঝেনি।

শিক্ষিত ভদ্রলোকটা Thank you দিয়ে চলে যাওয়ার কিছুক্ষন পর- ঐ অশিক্ষিত ভদ্রলোকটা শিক্ষিত ভদ্রলোকটাকে পিছন থেকে বলতে লাগলো- “ব্যাটা, তুমি আমাকে যে Thank you বলছো- ভাল বললে তো বলছো- আর যদি ভাল না বলো- তোমার চৌদ্দ গোষ্টীরে Thank you!”

Advertisements
কৌতুক সংগ্রহ-০৩ তে মন্তব্য বন্ধ
%d bloggers like this: