মোবাইল মেসেজে সুন্দরবনকে ভোটিং করা যাবে

 মোবাইল মেসেজে সুন্দরবনকে ভোটিং করা যাবে


অবশেষে সুন্দরবনপ্রেমীদের প্রত্যাশা পূরণ হলো। প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচন প্রতিযোগিতায় সুন্দরবনকে বিজয়ী করতে সাশ্রয়ীমূল্যে মোবাইল ফোনে এসএমএস-এর মাধ্যমে ভোট দেয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে। সুইজারল্যান্ডভিত্তিক নিউ সেভেন ওয়ান্ডারার্স অব নেচার ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের সাথে বাংলাদেশ সরকারের চুক্তির প্রেক্ষিতে গতরাত ১২-০১ মিনিট থেকেই মেসেজের মাধ্যমে ভোট প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে ব্যাপক সংখ্যক মোবাইল মেসেজের মাধ্যমে ভোটিং করে সুন্দরবনকে বিজয়ী করার একটি সহজ ক্ষেত্র তৈরী হলো।  এক্ষেত্রে ‘টেলিটক’ বাংলাদেশ লিমিটেড বাংলাদেশের  অন্যান্য মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে গেটওয়ে সংযোগ প্রদানের মাধ্যমে বাংলাদেশে ব্যবহৃত সকল অপারেটরের প্রায় ৪ কোটি গ্রাহকগণই এসএমএস-এ সুন্দরবনকে ভোট প্রদান করতে পারবেন। 
জানা গেছে, এসএমএস-এর মাধ্যমে ভোটদানের ক্ষেত্রে যে কোন মোবাইল ফোন থেকে  মেসেজ অপশনে গিয়ে ঝই লিখে পাঠিয়ে দিতে হবে ‘১৬৩৩৩’ নম্বরে। এসএমএসটি গৃহীত হলে ভোটদানকারী একটি ‘কনফার্মেশন’ ফিরতি এসএমএস পাবেন। ভোট প্রদানের ক্ষেত্রে  সুন্দরবনের জন্য ‘কী-ওয়ার্ড’ ঝই । অন্য স্থানগুলোর কী-ওয়ার্ডসহ বিস্তারিত তথ্য টেলিটকের ওয়েবসাইটে http://www.teletalk.com.bd/ পাওয়া যাচ্ছে। সূত্রের তথ্য অনুযায়ী গতরাত ১২টা-১ মিনিট হতেই যে কেউ মোবাইলের মাধ্যমে সুন্দরবনকে ভোট দিতে পারছেন। সুন্দরবন বাদেও যে কোন ব্যক্তি যে কোন মোবাইল থেকেই তার পছন্দের প্রাকৃতিক স্থানকে যতবার খুশি ততবার ভোট দিতে পারবেন। ভোটগ্রহণ চলবে চলতি বছরের ১০ই নভেম্বর পর্যন্ত। এসএমএস-এ ভোট প্রদানের ক্ষেত্রে ২ টাকা এবং ভ্যাট হিসেবে আরও ৩০ পয়সাসহ মোট ২ টাকা ৩০ পয়সা  কাটা হবে বলে জানা গেছে। সূত্র জানায়, সুন্দরবন সমর্থন কমিটি-বাংলাদেশসহ সুন্দরবনপ্রেমীরা দীর্ঘদিন যাবৎ সুন্দরবনের ভোট প্রদানের নাম্বারটি ‘টোল ফ্রি’ করার আবেদন করে আসছিল। এ ক্ষেত্রে সরকারও ইতিবাচক মনোভাব প্রকাশ করে। কিন্তু নিউ সেভেন ওয়ান্ডারার্স কর্তৃপক্ষ টেকনিক্যাল কারণে বিষয়টিতে অনুমোদন দেয়নি। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের আপামর মানুষের প্রকৃতির প্রতি ভালবাসার অন্যন্যসুন্দর দৃষ্টিভঙ্গি  এবং তাদের আর্থ-সামাজিক অনগ্রসরতা এবং সীমাবদ্ধতাকে বিবেচনায় এনে নিউ সেভেন ওয়ান্ডারার্স কর্তৃপক্ষ  বিকল্প হিসেবে এসএমএস-এর মাধ্যমে নামমাত্র মূল্যে ভোট প্রদানের দাবিটিতে অনুমোদন দিয়েছে। এসএমএস-এর মাধ্যমে এই ভোট প্রদানের বিষয়টিতে নিশ্চয়তা বিধানের জন্য সুন্দরবন সমর্থক কমিটি-বাংলাদেশের আহবায়ক পূর্বাঞ্চল সম্পাদক আলহাজ্ব লিয়াকত আলী, সদস্য সচিব উন্নয়ন সংগঠন রূপান্তরের নির্বাহী পরিচালক রফিকুল ইসলাম খোকন এবং সমন্বয়কারী একে হিরু সেভেন ওয়ান্ডারার্স কর্তৃপক্ষ এবং পরিবেশ ও বন মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি সুন্দরবনপ্রেমীদের পক্ষে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।  ল্যান্ডফোন, মোবাইল ফোন এবং এসএমএসসহ ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রাপ্ত  ভোটের ভিত্তিতে ১১ নভেম্বর জগতের ৭টি নতুন সপ্তাশ্চর্যের নাম ঘোষণা করা হবে। উল্লেখ্য, বর্তমানে সুন্দরবনসহ ২৮টি প্রাকৃতিক সম্পদ ফাইনাল রাউন্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।  বিটিআরসি কার্যালয়ে গতকাল আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী রাজি উদ্দিন আহমেদ রাজু এবং পরিবেশ ও বন প্রতিমন্ত্রী হাসান মাহমুদসহ ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব, চেয়ারম্যান বিটিআরসি এবং মোবাইল ফোন অপারেটরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত  থেকে মেসেজের ভোটিং করার সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। 

সূত্র: নেট

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: