হুমকির মুখে সুন্দরবন

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। সিডর, আইলা, অতিবৃষ্টি-অনাবৃষ্টি, অতিরিক্ত শীত, যথাযথ সময়ে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় না হওয়া এসবই জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব। নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়ে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনের অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়েছে। কমে যাচ্ছে দেশের বনভূমি। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় বাড়ছে লবণ পানি। দেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর ১০টি ও মেরুদণ্ডী প্রাণীর ১৩টি প্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে গেছে। বিলুপ্ত হওয়ার পথে আরও ১৫০ প্রজাতির প্রাণী।

প্রকৃতির বৈরী আচরণ : বিশ্বজুড়ে বৈরী আচরণ করছে প্রকৃতি। ২০১০ সালের মাঝামাঝি সময় থেকে বিশ্বজুড়ে ধারাবাহিকভাবে চলছে দাবানল, ছাই-মেঘ, বন্যা, তুষারঝড়, ঝড়-জলোচ্ছ্বাস ও শৈত্যপ্রবাহ। কয়েক বছর ধরেই পৃথিবীর বুকে আঘাত হানছে বৈরী আবহাওয়া। ২০০৭ সালে সিডর, ২০০৯ সালে আইলা, ২০১০ সালে এক দিনে সর্বকালের রেকর্ড বৃষ্টিপাতের পর আট বছরের মধ্যে এবার সবচেয়ে তীব্র শীতের কবলে পড়ে বাংলাদেশ। ১ জুন থেকে পুরোদমে বর্ষা শুরুর পূর্বাভাস থাকলেও এখনও মৌসুমি বায়ু সক্রিয় হয়নি।

আইপিসিসির ফোর্থ রিপোর্ট : জলবায়ু বিষয়ক ফোর্থ অ্যাসেসমেন্ট রিপোর্ট অন ইন্টার-গভর্নমেন্টাল প্যানেল অব ক্লাইমেট (আইপিসিসি) প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০৫০ সালের মধ্যে বঙ্গোপসাগরের পানির উচ্চতা ২৭ থেকে ৫৯ সেন্টিমিটার বেড়ে যাবে। যদি এ উচ্চতা ৬০ সেন্টিমিটার বাড়ে তবে বাংলাদেশের ১৭ শতাংশ ভূমি সাগরের পানিতে তলিয়ে যাবে।

সুন্দরবনের অস্তিত্ব সংকটের মুখে : জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন হুমকির মুখে পড়েছে। নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে সবচেয়ে বড় দুর্যোগ হিসেবে সুন্দরবনের সামনে হাজির হয়েছে পানির লবণাক্ততা। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় সুন্দরবন অঞ্চলের পানিতে লবণাক্ততা বেড়ে যাচ্ছে। লবণাক্ত পানির এ আগ্রাসনে মরতে বসেছে সুন্দরবনের অন্যতম সম্পদ সুন্দরী গাছ। রয়েল বেঙ্গল টাইগার লবণপানি পানের কারণে আক্রান্ত হচ্ছে প্রাণঘাতী লিভার সিরোসিসে। হারিয়ে যেতে বসেছে সুন্দরবনের পুরো ইকো সিস্টেম। ধারণা করা হচ্ছে, এখনই ব্যবস্থা না নিলে আগামী ৫০ বছরের মধ্যে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে সুন্দরবন। এতে নিরাপত্তাহীনতায় পড়বে সমগ্র উপকূল।

কমছে বনভূমি : একটি দেশের প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার জন্য মোট আয়তনের ২৫ শতাংশ বনভূমি প্রয়োজন। অথচ বন মন্ত্রণালয়ের হিসাবে ১০ থেকে ১২ ভাগ বনভূমি রয়েছে। বেসরকারি সংস্থার কয়েকটি জরিপমতে অবশ্য বনভূমির পরিমাণ ৬ ভাগ বলে জানা গেছে।

বিলুপ্ত ২৩ প্রজাতির প্রাণী : জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ দূষণের কারণে দেশের স্তন্যপায়ী প্রাণীর ১০টি ও মেরুীদন্ড প্রাণীর ১৩টি প্রজাতি এরই মধ্যে বিলুপ্ত হয়ে গেছে। ১৫০ প্রজাতির পাখি ও বন্যপ্রাণী বিলুপ্তির পথে। ৪৩ প্রজাতির স্তন্যপায়ী, ৪৭ প্রজাতির পাখি, ৮ প্রজাতির উভচর ও ৬৩ প্রজাতির সরীসৃপের অস্তিস্তও বিপন্ন। জীববৈচিত্র্য সমৃদ্ধ ছয়টি স্থানকে ‘পরিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা’ ঘোষণা করা হলেও নজরদারি ও প্রয়োজনীয় উদ্যোগের অভাবে সেগুলোরও বিপন্নদশা। নতুন ঘোষিত ২১টি সংরক্ষিত এলাকায় পরিবেশ দূষণ চলছে।
দূষণের নগরী ঢাকা : রাজধানী ঢাকার পানি-বাতাস খুবই অনিরাপদ। গৃহস্থালি, শিল্প ও হাসপাতালের বর্জ্য হুমকি হয়ে হাজির হয়েছে ঢাকার প্রায় ২ কোটি মানুষের সামনে। বাতাস, পানি, মাটি দূষণের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে শব্দদূষণ। বিষাক্ত সিসার কারণে রাজধানীর বাতাস দিনের পর দিন ভারী হয়ে উঠছে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, বিশ্বের অষ্টম বৃহত্তম নগরী ঢাকার পরিবেশের যে অবস্থা, তাতে অধিবাসীরা ভয়ানক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন। তাদের মতে, রোগব্যাধির যে বোঝা নাগরিকদের টানতে হয়, তার কমপক্ষে ২২ শতাংশের জন্য পরিবেশ দূষণের বিষয়গুলো সরাসরি দায়ী। এক্ষেত্রে বায়ুদূষণ, অপর্যাপ্ত বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং ভূপৃষ্ঠের পানিদূষণ এ তিনটি কারণকে চিহ্নিত করেছেন তারা।
পরিবেশ আদালতে ৮ বছরে শাস্তি হয়নি একজনেরও : এদিকে পরিবেশ দূষণ ভয়াবহ আকার ধারণ করলেও তা প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারছেন না পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ও আদালত। পরিবেশ দূষণের মাধ্যমে ফৌজদারি অপরাধ করেও অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। পরিবেশ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, পরিবেশ আইনের অধীনে গঠিত ঢাকা বিভাগীয় পরিবেশ আদালতে গত আট বছরে মামলা হয়েছে ৪০৩টি। এর মধ্যে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে ১১২টি। ২৮১টি মামলা নিষ্পত্তি হলেও কারাদ হয়নি একজনেরও।

সূত্র: নেট

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: