কুমড়া খান দীর্ঘজীবী হোন


শাকসবজির উপকারিতার কথা সবাই জানেন। তারপরও বাড়িতে ছেলেমেয়েরা শাকসবজি খেতে চায় না। বিশেষ করে কুমড়ার প্রতি বয়স্কদেরও কমবেশি অনীহা দেখা যায়। কিন্তু কুমড়া যে দীর্ঘ জীবনের জন্য সহায়ক সে কথাটি জানলে এই অনীহা থাকত না।
অতি সম্প্রতি মার্কিন গবেষকরা প্রমাণ পেয়েছেন কুমড়া নিয়মিত খেলে দীর্ঘজীবী হওয়া যাবে। এই রহস্যের পিছনে রয়েছে আলফা ক্যারোটিন নামের একটি উপাদান। সাধারণত হলুদ কমলা রঙের ফলমূল ও সবজিতে এই উপাদান প্রচুর থাকে।

এদের মধ্যে অন্যতম হলো কুমড়া। এতদিন আমরা একটি পরিচিত উপাদান বিটা ক্যারোটিনের উপকারিতার কথা জেনে আসছি।ক্যান্সার প্রতিরোধ ও হৃদরোগ নিরাময়ে বিটা ক্যারোটিনের কথা বলা হয়। কিন্তু সম্প্রতি আরেকটি গবেষণায় দেখা গেছে বিটা ক্যারোটিনযুক্ত ওষুধ ক্যান্সার প্রতিরোধ নয়, বিস্তারে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। বরং আলফা ক্যারোটিনই এখন উপকারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। এতদিন এই রাসায়নিক উপাদানটি সম্পর্কে গবেষকরা খুব একটা মাথা ঘামাননি। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের একদল গবেষক ১৯৮৮ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ১৬ হাজার মার্কিন নাগরিকের খাদ্যাভ্যাস এবং পুষ্টি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে দেখতে পান, যাদের রক্তে আলফা ক্যারোটিনের পরিমাণ বেশি তারা অন্যদের চেয়ে বেশি দিন বেঁচেছে। যারা বেশি দিন বেেচছে তাদের খাদ্যাভ্যাস পরীক্ষা করে দেখা গেছে, তারা কুমড়া, গাজর, স্কোয়াশ ইত্যাদি হলুদ কমলা রঙের সবজি বেশি খেয়েছেন।

গবেষকদের মতে, ফলমূল বেশি খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো তা আমরা সবাই জানি। কিন্তু অবহেলিত সবজি কুমড়া যে দীর্ঘ জীবনের সহায়ক উপাদান বহন করছে তা এতদিন জানতাম না। তারা খাদ্য তালিকায় যথাসম্ভব কুমড়া, গাজর, কমলা ইত্যাদি রাখার পরামর্শ দিয়েছেন। বেঁচে থাক কুমড়া।

Advertisements
%d bloggers like this: